ফরেক্স লিভারেজ

মামাঃ তোমাগো ফরেক্স কি আসলে ব্যবসা না জুয়া খেলা আমি বুঝি না।

ভাগ্নেঃ কেন মামু কি হয়েছে?

মামাঃ ব্যবসা করলে কি কখনো ব্যালেন্স জিরো হয়? আমরা তো কোনো জিনিস কিনে রেখে পরে তা বিক্রয় করলে যত লসই হোক ব্যালেন্স তো কিছু পাই। জিরো তো হয় না। আর তোগো ফরেক্স এ শুনি তোরা অনেকে ৯০%-৯৫% ব্যালেন্স জিরো করে ফেলিস। ব্যবসা করলে ব্যালেন্স জিরো হবে কেনো?

ভাগ্নেঃ ও এই কথা তাহলে আমি তোমাকে কিছু প্রশ্ন করি? প্রশ্নগুলোর উত্তর তুমি দিলেই বুঝতে পারবা ব্যাবসা করলেও ব্যালেন্স জিরো হতে পারে কি না?

মামাঃ আচ্ছা কর, দেখি কি করে তুই ব্যালেন্স জিরো করিস? ব্যবসা করে ব্যালেন্স জিরো এই বিষয়টি যদি বুঝাতে পারিস তাহলে ফরেক্স কে তো আর জুয়া বলা যাবে না, কারন আমাদের ইসলামে “আল্লাহ ব্যবসাকে করেছেন হালাল আর সুদকে করেছেন হারাম” তবে ব্যবসাটি হতে হবে সঠিক পন্থায়।

ভাগ্নেঃ আচ্ছা তোমরা কত টাকা নিয়ে ব্যবসা কর?

মামাঃ এই মনে কর ৮০,০০০ টাকা যা তোদের হিসাবে ১,০০০ ডলার প্রায়।

ভাগ্নেঃ এই ১,০০০ ডলার নিয়ে তুমি যদি ফরেক্স ব্যবসা কর তাহলে তুমি জিবনেও ব্যালেন্স জিরো করতে পারবা না।

মামাঃ তাহলে শুনি যে তোরা ব্যালেন্স জিরো করিস?

ভাগ্নেঃ হ্যা, এবার আসল কথায় আসি। মামু তোমরা কি লোন মানে লিভারেজ নিয়ে ব্যবসা করেছো?

মামাঃ হ্যা, এখোন তো অনেকে লোন নিয়ে ব্যবসা করে। ওই যে বাংলাদেশে এন,জি,ও আছে না। ওরা তো লোন দেয়।

ভাগ্নেঃ ওরা লোন দেয় কিসের বিনিময়ে।

মামাঃ কেন লোন দিলে ওরা লাভ পায়। লাভ মানে #সু-উ-দ। এই তুই কি বলতে চাচ্ছিস? আমি লোন টোন নেয় না।

ভাগ্নেঃ দাড়াও মামু কথা ঘুরালে হবে না। আমার বিষয় ই তো লোন নিয়ে। তবে এই লোন এ কোন সুদ বা লাভ দিতে হবে না। তুমি আজিবন ব্যবহার করতে পারবে। তবে তুমি ব্যবসা করার জন্য যে গোডাউন ভাড়া করবে সেই গোডাউন ও ওরা দেবে। তুমি শুধু গোডাউন ভাড়াটা দিবা। #(স্প্রেড) তুমি মাল রাখলে ভাড়া দিবা না রাখলে দিবা না।

মামাঃ কি বলিস যারা আমাকে লাভ ছাড়া লোন দিবে তাদের গোডাউন আমি নিবো না কেন? গোডাউন তো আমাকে ভাড়া করতেই হবে ব্যবসা করার জন্য। আর কি বললি মাল রাখলে ভাড়া না রাখলে দিতে হবে না তাহলে তো আরো কিছু সেফ হবে। যখন সুযোগ পাবো কিনে রাখবো আর বিক্রয় করবো। এ তো দেখছি মেঘ না চাইতেই বৃষ্টি।

ভাগ্নেঃ তাহলে বুঝ আমরা কত খাটি ব্যবসা করি। হ্যা এবার আসি তোমার জিরো বিষয়ে।

তোমার মুল টাকা ৮০,০০০/= মানে ১,০০০ ডলার আর লোন নিলে ১,০০০ ডলার মানে ১:১। তাহলে তোমার হল ২,০০০ ডলার। এবার তুমি ২,০০০ ডলার দিয়ে কিছু কিনে রাখলে। তুমি এমন সময় কিনলে যে সময় দাম কমার চেয়ে দাম বাড়বে বেশি। তাহলে লাভের অনুপাতটা বাড়বে। কিন্তু যদি কোন ঘটনা ক্রমে সেই জিনিসের দাম অর্ধেক কমে যায় তাহলে কি হবে। তাহলে তোমার ব্যালেন্স ২,০০০ থেকে ১,০০০ হয়ে গেল। যা তোমার নিজের ১,০০০ ডলার লস করে ফেললে। তুমি যদি এবার ওদের লোন নিয়ে ব্যবসা কর তাহলে আবার লস করলে সেই টাকা কোথা থেকে দিবে। তোমার কাছে দেয়ার মত তো কোন টাকা নেই। ওদের শর্ত তোমার নিজের টাকা পর্জন্ত তুমি লস করলে ওরা আর লোন ব্যবহার করতে দিবে না। তোমার দেয়ার মত কিছু টাকা থাকলে দাও আবার তারা তোমাকে লোন দিবে বা আগের মত ব্যবহার করতে পারবা। কি মামু বুঝাতে পারলাম তো ব্যালেন্স জিরো কিভাবে হয়। তবে এখানে তো ১:১ লোন এর হিসাব দেখালাম। আর ওরা তোমাকে আরো বেশি লোন দিবে তুমি যদি লোন ভালোভাবে ব্যবহার করতে পারো তাহলে প্রচুর লাভ করতে পারবে। ওরা ১:১০০, ১:২০০, ১:৫০০, ১:১০০০, এমনকি ১:২০০০ ও লোন দেয়। লোন যত বেশি নিবে লাভ করা বা লস করার হার তত বেশি। আর লোন যত কম নিবে লাভ করার হার বা লস করার হার তত কম।

মামাঃ হ রে ভাগ্নি এখোন বুঝলাম ব্যবসা করে ব্যালেন্স জিরো হতে পারে তবে জিরো হউয়ার আগে ব্যালেন্স ঢুকালে বা ডিপোজিট করলে তো আর ব্যালেন্স জিরো হয় না। আমার যদি কনফিডেন্স থাকে যে দাম এখান থেকে আবার আগের যায়গায় বা তার বেশি হবে তাহলে ডিপোজিট করায় ভালো আর কনফিডেন্স না থাকলে ডিপোজিট না করায় ভালো হবে। যুগ অনেক পাল্টিয়েছে রে ভাগ্নি।

ভাগ্নিঃ হুম। আমরা এখোন থার্ড জেনারেশন। অনেকে ফোর্থ জেনারেশন এও পৌছিয়ে গেছি। :ful:

এখান থেকে আমরা জানতে পারলাম। লেভারেজ ই ব্যালেন্স জিরো করার মুল কারন। লিভারেজ ছাড়া ব্যালেন্স জিরো সম্ভব না।

বিঃদ্রঃ আমরা বাশ, টিন দিয়ে গোডাউন বানায় যেখানে টাকা বা শ্রম খরচ হয়। আর ভার্চুয়াল জগতে বাশ, টিন না লাগ্লেউ টাকা, শ্রম, মেধা খরচ হয় প্রচুর। লাগে অনেক প্রগ্রামার, দিতে হয় বিজ্ঞাপন। এর বিনিময়ে ওরা ভার্চুয়াল জগতে এটা দিতে পারে। এটাকে আপনারা ভুল দিকে বিবেচনা করলে আমার কিছু করার নেই। সর্বপরি সবার সুন্দর ট্রেডিং লাইফ কামনায় এখানে ইতি টানলাম। আপনাদের দোয়া পেলে অন্য আরেকদিন না হয় আরেক বিষয়ে আলোচনা করা যাবে।

লেখার মাঝে অনেক ভুলত্রুটি থাকতে পারে। মানুষ মাত্রই ভুল। আপনারা ভুলত্রুটি গুলো না ধরে এর ভালো দিক সম্পর্কে মন্তব্য করলে খুশি হব।

-দুলালুদ্দিন

৮/৫/২০১৪ইং

2 COMMENTS

Please Leave a Reply