ফরেক্স ট্রেড টিপস

বর্তমানের ট্রেডাররা যে হারে ট্রেড করে থাকে তাকে ট্রেডিং না বলে গ্যাম্বলিং বলাই ভাল।
কিন্তু আসলেই কি ফরেক্স গ্যম্বলিং?
না ফরেক্স গ্যাম্বলিং না বরং ইনভেষ্টমেন্ট, একটি বিজনেস। একজন সফল বিজনেসম্যান হতে হলে অবশ্যই আগে ব্যবসাটা সর্ম্পকে জানতে হবে। এটার পুরা আইডিয়া নিতে হবে। নিজের ব্যবসাটাকে প্রফিটেবল বানাতে চাইলে এবং লসের হাত থেকে বাচতে চাইলে অবশ্যই খুটিনাটি সব কিছু জানতে হবে।
লংটাইম যদি ফরেক্স এ টিকে থাকতে চান এই ৮ টি টিপস আপনাকে দিচ্ছি এগুলো মেনেই ফরেক্স শুরু করুন।
১. ফরেক্স এডুকেশন-
যখনি আপনি একজন ফরেক্স ট্রেডার হিসেবে নিজেকে দেখার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছেন তখনি আপনাকে ফরেক্স সর্ম্পকে এডুকেটেড হতে হবে। ৫০০ ট্রিলিয়ন ডলারের এ বিশাল মার্কেটে যখনি আপনি ইন করছেন তখনি মনে করতে হবে এই বিশাল সমূদ্রে আপনাকে টিকে থাকার জন্য উপযুক্ত তরীর দরকার আছে। নিজেকে যুদ্ধক্ষেত্রে টিকার জন্য নলেজ এর অস্ত্রে সু-সজ্জিত হতে হবে। জানতে হবে এটির আদ্যোপান্ত। এবং নিজেকে আপটুডেট রাখতে হবে সবসময়।
২. প্রফিটেবল স্ট্রাটেজি ডেভেলপ করুন-
যখনি ফরেক্স মার্কেটের বেসিক জিনিসগুলা আপনার আয়ত্বে এসে যাবে তখনি সেসব কাজে লাগিয়ে একটি প্রফিটেবল স্ট্রাটেজি বানাতে হবে।  এটি আপনি বিভিন্ন সিস্টেম দেখে বানাতে পারেন, অথবা এক্সপার্ট কোন ট্রেডারের সহায়তা নিয়েও আয়ত্ব করতে পারেন।
৩. স্ট্রাটেজিকে ডেমোতে টেষ্ট করুন-

যখনি কোন একটা ভাল প্রফিটেবল স্ট্রাটেজি বানাতে সক্ষম হবেন তখনি সেটাকে ডেমোতে টেষ্ট করুন। এবং ডেমোটাকে রিয়েল একাউন্ট মনে করেই টেষ্ট করুন। আস্তে আস্তে নিজের স্ট্রাটেজিটাকে ত্রুটিমুক্ত করুন। এভাবেই হয়তো কোন একটি ভাল এবং প্রফিটেবল স্ট্রাটেজি আপনি বানিয়ে ফেলতে পারবেন।
৪. রিস্ক সম্পর্কে ভালভাবে অবগত হোন
ভাল একটি স্ট্রাটেজি তৈরি করে সেটাকে ডেমোতে টেষ্ট করেছেন মনে করুন আপনি কম্পিউটারে NFS গেমসে গাড়ি চালানো শিখেছেন। এখনো মেইন রোডে কিন্তু নামেননি।  মেইন রোডে নামার আগে আপনাকে আগে মাঠে চালানো শিখতে হবে। রিস্ক বুঝতে হবে। গাড়ী কন্ট্রোল শিখতে হবে।
তেমনি ডেমোতে স্ট্রাটেজি টেষ্ট এর সময়ই আপনাকে ট্রেড ম্যানেজমেন্ট শিখতে হবে। রিস্ক – রিওয়ার্ড জানতে হবে। কখনো লসে চলে গেলে কি করবেন সেসব বুঝতে হবে। টেকনিক্যাল আর ফান্ডামেন্টাল এনালাইসিস করে ট্রেড নিতে হবে। অনেক সময় আপনার স্ট্রাটেজিতে ট্রেড নেবার সময় আসলেও মার্কেট এনালাইসিস করে দেখতে পাবেন আপনার স্ট্রাটেজিমতে এখন ট্রেড নেয়াটা রিস্কি হয়ে যাচ্ছে। তখন ট্রেড থেকে বিরত থাকতে হবে। অথবা ট্রেড দিয়ে ফেললেও সেটাকে ম্যানেজিং করতে হবে।
৫. লাইভ ট্রেডের জন্য প্রস্তুত হোন –

এতদিন তো ডেমো করেছেন, সেটাতে অনেক প্রফিটও করেছেন এবার লাইভ এর জন্য প্রস্তুত হোন।  ব্রোকার সর্ম্পকে খোজ খবর রাখুন, আপনার ট্রেডের জন্য ডিভাইস চুজ করুন, টার্মিনাল চয়েস করুন। বর্তমানে মাল্টিপল ওয়েতে ট্রেড করা যায়। অনেক রকম প্লাটফর্ম আছে। আপনার কাছে যেটিতে সাচ্ছন্দবোধ লাগে সেটিতেই ট্রাই করুন। ট্রেডের ধরণ হিসেবে টার্মিনাল চুজ করুন।  এমন টার্মিনাল চুজ করুন যেটিতে মার্কেট এনালাইসিস করা যায়।
বর্তমানে সাধারণ ট্রেডারদের কাছে mt4 খুবই জনপ্রিয় আর অনেকের কাছে C-Trader আবার এন্ড্রয়েড মোবাইলেও অনেকে ট্রেড করে থাকেন দুটি প্লাটফর্মেই। আপনার যেটাতে ট্রেড করে ভাল লাগে সেটিতেই করার জন্য প্রস্তুত হোন।
৬. ভাল একটি ব্রোকার চুজ করুন
ফরেক্স ট্রেডে লস দুভাবে হয়। এক নিজের ট্রেডের কারণে। দুই ব্রোকারের কারণে। তাই ভাল একটি ব্রোকার খুজে নেয়া খুবই জরুরী। ভাল ব্রোকার খুজতে আপনাকে কয়েকটি জিনিস মাথায় রাখতে হবে। তাদের ভাল রেগুলেশন। ভাল এক্সিকিউশন, হেজিং, স্কাল্পিং, Ea গ্রহণযোগ্যতা সহ সবকিছু দেখে নিবেন। সবচেয়ে ভাল হয় পুরাতন কোন এক্সপার্ট ট্রেডার থেকে পরামর্শ নেয়া।
৭. খুব ছোট আকারে শুরু করুন, আস্তে আস্তে এগোন
ফরেক্স মার্কেটে দেখা যায় বেশিরভাগই বড় আকারে শুরু করে কিন্তু মাস-দুইমাস পরই সব হারিয়ে ফেলে। তাই আমার পরামর্শ হলো খুবই ছোট আকারে শুরু করুন। আস্তে আস্তে প্রফিট করুন। খুব কম প্রফিট টার্গেট হলে রিস্কটাও খুব কম হয়।  বেশিরভাগ ট্রেডারই প্রথমে একাউন্ট এ লস করে করে অভিজ্ঞ হয় কিন্তু যখনি সে অভিজ্ঞ হয় তখন ডিপোজিট করার মত ভাল এমাউন্ট থাকেনা। তাই অল্পের উপর রিস্ক নিলে অল্প লস হলে যখন অভিজ্ঞতা হয়ে যাবে তখন ভাল এমাউন্ট ডিপোজিট করে প্রফিট করা যায়।
৮. প্রতিদিনের প্রিন্টেড রেকর্ড রাখুন
প্রতিদিন লাভ হোক বা লস সবসময় সেটায় ডায়েরিতে লিপিবদ্ধ করে রাখুন। কেন প্রফিট হলো কেন লস হলো সব লিখে রাখুন, তাহলে আপনার লস বা প্রফিটের কারণগুলার রেকর্ড থাকবে।
আর্টিকেলটা জাষ্ট অনুবাদ করা হয়েছে – কিছুটা পরিবর্তিত

Please Leave a Reply